মূল পাতা / মানসিক স্বাস্থ্য / গেমিং ডিজঅর্ডারের নির্দেশনাবলী

গেমিং ডিজঅর্ডারের নির্দেশনাবলী

কম্পিউটার বা স্মার্টফোনে গেমের প্রতি আসক্তি বোধ করা এক ধরনের মানসিক রোগ। এ ধরনের আচরন থেকে মূলত গেমিং ডিজঅর্ডার বা অনিশ্চিত ডিজিটাল ভিডিও গেমের আচরনের ধারনাটি এসেছে। যা পরবর্তীতে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার ইন্টারন্যাশনাল ক্লাসিফিকেসন অব ডিজিজের ( আইসিডি ) ১১ তম সংস্করনে যুক্ত হয়েছে।

ডব্লিউএইচওর বিশেষজ্ঞদের মতে, গেমিং ডিজঅর্ডার হল ভিডিও গেমিংয়ের প্ল্যাটফর্মের একটি আচরণগত বৈশিষ্ট্য। যা মানুষের অন্যান্য কাজের তুলনায় গেমকে বেশি প্রাধান্য দেয়। নেতিবাচক প্রভাব পড়ার পরও তা চালিয়ে যেতে থাকে।

ডব্লিউএইচওর তথ্যমতে গেমিং ডিজঅর্ডারের ৬ টি নির্দেশনা রয়েছেঃ
১। নিয়ন্ত্রনহীন গেম খেলা।
২। প্রাত্যহিক জীবনের অন্যান্য কাজের তুলনায় গেমকে বেশি প্রাধান্য দেওয়া।
৩। নেতিবাচক প্রভাব সত্ত্বেও গেম খেলা চালিয়ে যাওয়া।
৪। প্রতিদিনের একটা বড় অংশ জুড়ে গেম নিয়ে ব্যস্ত থাকা।
৫। অনিদ্রা, শারীরিক অসুস্থতা, এমনকি পুষ্টিহীনতায় ভোগা।
৬। এই রোগের স্থায়িত্ব অন্তত ১২ মাস পর্যন্ত থাকতে পারে।