বিএসএমএমইউতে এটিসিবি‘র সপ্তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উদযাপন

বিএসএমএমইউতে এটিসিবি‘র সপ্তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উদযাপন

অ্যাসোসিয়েশন অব থেরাপিওটিক কাউন্সিলরস বাংলাদেশের (এটিসিবি) সপ্তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উপলক্ষে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়ে (বিএসএমএমইউ) দিনব্যাপী কর্মশালা ও আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে। এবারের প্রতিপাদ্য ছিলো- কম্পিউটারাইজড কগনিটিভ বিহেভিয়ারাল থেরাপির প্রয়োগ ও ব্যবহার।

গতকাল সোমবার বিএসএমএমইউ‘র শহীদ ডা. মিলন হলে দিনব্যাপী এ কর্মশালা ও আলোচনা  সভা অনুষ্ঠিত হয়।

অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন বিএসএমএমইউ‘র সাইকিয়াট্রি বিভাগের চেয়ারম্যান এবং এটিসিপি‘র সভাপতি অধ্যাপক ঝুনু শামসুন নাহার।

সভায় প্রধান অতিথি ছিলেন বিএসএমএমইউ‘র উপাচার্য অধ্যাপক ডা. কামরুল হাসান খান। বিশেষ অতিথির মধ্যে উপস্থিত ছিলেন বিশ্ববিদ্যালয়টির উপ-উপাচার্য অধ্যাপক ডা. এ.এস.এম জাকারিয়া, এটিসিবির সাধারণ সম্পাদক ডা. সুলতনা আলগিন, অধ্যাপক ডা. মো. শরফুদ্দিন আহমেদ এবং অধ্যাপক ডা. মো. শহীদুল্লাহ শিকদার। বিশেষ অতিথির মধ্যে আরও উপস্থিত ছিলেন বাংলাদেশ এসোসিয়েশন অব সাইকিয়াট্রিস্টস এর সাধারণ সম্পাদক অধ্যাপক ডা. মোহিত কামাল এবং জাতীয় মানসিক স্বাস্থ্য ইনস্টিটিউটের মহাপরিচালক অধ্যাপক ডা. মো. ফারুক আলম।

আলোচনা সভার প্রধান অতিথি বিএসএমএমইউ‘র উপাচার্য অধ্যাপক ডা. কামরুল হাসান রোহিঙ্গা পরিস্থিতিতে সাইকোথেরাপি বিভাগের ভূমিকা নিয়ে ভূয়সী প্রশংসা  করেন। সেই সঙ্গে সাইকোথেরাপি বিভাগের কর্মীদের প্রতি কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেন। এ সময় মাদক প্রতিরোধসহ একটি সুখি, সুস্থ ও নিরোগ জাতি গঠনে সবাইকে একসাথে কাজ করার আহ্বান জানান।

সভায় মূল প্রবন্ধ পাঠ করেন বিএসএমএমইউ‘র সাইকিয়াট্রি বিভাগের রেসিডেন্ট ডা. মো. তায়াবুর রহমান। প্রবন্ধে তিনি বাংলাদেশে ইন্টারনেট ভিত্তিক কম্পিউটারাইজড কগনেটিভ বিহেভিয়ারাল থেরাপির সম্ভাবনা ও সীমাবদ্ধতা নিয়ে আলোচনা করেন।

একই দিনে বাংলাদেশের একমাত্র মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়টির সাইকোথেরাপি কোর্সের ১০ বছর পূর্তি উদযাপন করা হয়। বিভিন্ন কর্মসূচি ও  মনোজ্ঞ সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের মধ্যে দিয়ে দিবসটি উদযাপিত হয়।


লক্ষ্য করুন- মানসিক স্বাস্থ্য বিষয়ক খবর বা প্রেস রিলিজও আমাদের পাঠাতে পারেন। বৈজ্ঞানিক সেমিনার, বিশেষ ওয়ার্কশপ, সাংগঠনিক কার্যক্রমসহ মানসিক স্বাস্থ্য বিষয়ক যে কোনো খবর পাঠাতে news@monerkhabor.com এই ইমেইলটি ব্যবহার করতে পারেন আপনারা।