মূল পাতা / প্রশ্ন-উত্তর / আপনি কি Anxiety Disorder -এ ভুগছেন?

আপনি কি Anxiety Disorder -এ ভুগছেন?

সমস্যা:
স্যার, একটু কষ্ট করে আমার এই লেখাটুকু পড়বেন এবং আমার কি করণীয় বলবেন প্লিজ। আমার বয়স ২৭ বছর এবং আমি পড়াশোনা করছি। ঠিক ১ বছর আগেও আর ১০ জনের মতেো স্বাভাবিক জীবনে ছিলাম। হঠাৎ করেই বুকে কেমন যেন ধক করে উঠল, প্রথমদিকে স্বাভাবিক থাকলেও এটা যখন (বুকে ধক করা) বেশি করতে লাগল, তখন ভয় পেয়ে গেলাম। আমার হার্টের অসুখ নয় তো? পরে আমি একজন বক্ষব্যাধির ডাক্তার দেখালাম, তিনি আমাকে বললেন এটা হার্টের কোনো রোগ নয়, বরং এটা গ্যাস্ট্রিকের সমস্যা। তারপর কিছুদিন সুস্থ ছিলাম কিন্তু হঠাৎ করে আবার সেই সমস্যা, সাথে যোগ হলো মাথা ঘোরা, অনিদ্রা, বুক ধড়ফর করা, হাইপ্রেশার। আবার একজন ডাক্তার দেখালাম, তিনি কিছু ঔষধ লিখে দিলেন। দিন যেতে থাকল, কখনও ভালো কখনও খারাপ। কিন্ত বর্তমানে আমি দুর্বিষহ জীবন যাপন করছি। হঠাৎ করেই বুকের মধ্যে আতংক চলে আসে, মনে হয় বুকে যেন কি হয়েছে, সারা শরীরসহ মাথা গরম হয়ে যায়, মাথা সব সময় ভার হয়ে থাকে, মাথা ঘোরায়, ঘুম থেকে উঠার পর থেকেই বুকে কেমন যেন চাপ অনুভূত হয়, মনে হয় ঘুম ঠিকমতো হয় নাই, সারাদিনই ক্লান্তি লাগে, শরীর ও হাত-পা কাঁপে, খাওয়ার রুচি খুব কম, মাঝে মধ্যে বুক ব্যথা করে, ঘুমানোর সময় বুক ধড়ফর করে, মাঝে মধ্যে কানে টকটক শব্দ হয়, প্রেশার বেড়ে যায়, দাঁত-মুখ কেমন জানি শক্ত হয়ে যায়। বাইরে যেতে ভয় পাই।

স্যার, নিজেকে নিজে বুঝানোর চেষ্টা করি আমার কিছু হয় নাই, কিন্ত পরক্ষণেই কী এক অজানা আতংক আমাকে গ্রাস করে ফেলে। সর্বদা নিজেকে নিয়ে ব্যস্ত থাকি, নেতিবাচক চিন্তা ভাবনা চলে আসে। এমন অবস্থায় আমি কি করতে পারি দয়া করে একটু জানাবেন স্যার।

পরামর্শ:
প্রশ্ন করার জন্য আপনাকে ধন্যবাদআপনার প্রশ্ন থেকে স্পষ্টতই বোঝা যাচ্ছে যে, আপনার মধ্যে উদ্বেগজনিত রোগের (Anxiety Disorder) অধিকাংশ উপসর্গ বিদ্যমান। মনের মধ্যে আতংক চলে আসা, বুকে কি হয়েছে মনে হওয়া, সারা শরীরসহ মাথা গরম হয়ে যাওয়া, মাথা সব সময় ভার লাগা, মাথা ঘোরানো, বুকে চাপ অনুভূত হওয়া, বাইরে যেতে ভয় পাওয়া, ঘুমের সমস্যা ইত্যাদি আসলে উদ্বেগজনিত রোগের কারণেই হয়ে থাকে। আবার আপনি যেহেতু লিখেছেন যে, আপনার সারাদিনই ক্লান্তি লাগে, শরীর ও হাত পা কাঁপে, খাওয়ার রুচি কম, নেতিবাচক চিন্তা ভাবনা চলে আসে; কাজেই আপনার মধ্যে বিষন্নতারও (Depression) কিছু উপসর্গ তৈরি হয়েছে। আপনি আরো উল্লেখ করেছেন যে, আপনার হাইপ্রেশার আছে কিন্তু তা নিয়ন্ত্রনে আছে কিনা এবং কি ওষুধ খাচ্ছেন তা উল্লেখ করেননি বর্তমানে আপনি কোনো মানসিক চাপের মধ্যে আছেন কিনা, কোনো ওষুধ খাচ্ছেন কিনা ইত্যাদিসহ আরো বিস্তারিত তথ্য জানার প্রয়োজন আছে। পাশাপাশি আপনার মানসিক ও শারীরিক অবস্থা পরীক্ষারও বিশেষ প্রয়োজন আছে।

এ অবস্থায় আপাতত আপনি TAB MITRAZIN (15mg) প্রতিদিন রাতে একটা করে খাওয়া শুরু করতে পারেন। তবে আপনার প্রতি পরামর্শ যে, আপনি অবশ্যই একজন  মনোরোগ বিশেষজ্ঞের কাছে যানকতদিন ওষুধ খেতে হবে কিংবা অন্য কোনো ওষুধের প্রয়োজন আছে কিনা তা তিনিই সিদ্ধান্ত দিবেন। এ রোগের চিকিৎসায় ওষুধের পাশাপাশি  সাইকোথেরাপি ও রিলাক্সেশন ট্রেনিংয়ের প্রয়োজন আছে মনোরোগ বিশেষজ্ঞই আপনার বিস্তারিত ইতিহাস, বর্তমান মানসিক ও শারীরিক অবস্থা পরীক্ষার মাধ্যমে প্র্র্রয়োজনীয় ও উপযোগী  চিকিৎসা পরামর্শ দিবেন। এটি একটি নিরাময়যোগ্য রোগ তবে তার জন্য সাধারণত দীর্ঘমেয়াদী চিকিৎসা গ্রহণ করতে হয় আশা করি, প্রয়োজনীয়  চিকিৎসা নিয়ে আপনি দ্রুত সমস্যা কাটিয়ে উঠে পড়াশোনা সঠিকভাবে শুরু করতে পারবেন। আপনার জন্য শুভ কামনা রইলো।

পরামর্শ দিচ্ছেন,
ডা. সুস্মিতা রায়


দৃষ্টি আকর্ষণ- মনেরখবর.কম এর প্রশ্ন-উত্তর বিভাগে, মানসিক স্বাস্থ্য, যৌন স্বাস্থ্য, মাদকাসক্তি সহ মন সংক্রান্ত বিভিন্ন বিষয়ে আপনার কোনো জানার থাকলে বা প্রশ্ন থাকলে বা বিশেষজ্ঞ পরামর্শ দরকার হলে question@monerkhabor.com এই ইমেলের মাধ্যমে প্রশ্ন পাঠাতে পারেন।

সহযোগী অধ্যাপক, মনোরোগবিদ্যা বিভাগ জালালাবাদ রাগীব রাবেয়া মেডিকেল কলেজ, সিলেট