মূল পাতা / প্রতিদিনের চিঠি / মনে হয় তার অসুখ আছে কেউ ধরতে পারছে না

মনে হয় তার অসুখ আছে কেউ ধরতে পারছে না

আমাদের প্রতিদিনের জীবনে ঘটে নানা ঘটনা, দূর্ঘটনা। যা প্রভাব ফেলে আমাদের মনে। সেসবের সমাধান নিয়ে ‘প্রতিদিনের চিঠি’ বিভাগ। এই বিভাগে প্রতিদিনই আসছে নানা প্রশ্ন। যেগুলোর উত্তর দিচ্ছেন অধ্যাপক ডা. সালাহ্‌উদ্দিন কাউসার বিপ্লব। আমাদের আজকের প্রশ্ন পাঠিয়েছেন আমিনা সুলতানা (ছদ্মনাম) –

প্রতিদিনের চিঠি

চিঠি

আমার ভাইয়ের বয়স ১৯। তার সব সময় মনে হয় তার কোন বড় অসুখ হয়েছে। সে সবাইকে সেটাই বলে। ডাক্তার দেখিয়েছে কিছুই ধরা পড়েনি। কয়েকবার ডাক্তার পাল্টেছে তারপর নিজেই ব্লাড টেষ্ট, সিটিস্ক্যান কয়েকবার করিয়েছে সব নরম্যাল তবু তার মনে হয় তার অসুখ আছে কেউ ধরতে পারছে না। এটা নিয়ে সে সব সময় বিচলিত থাকে। এক্ষেত্রে করণীয় কি?

উত্তর

এটা একটা মানসিক রোগ। এই রোগে মানুষ নির্দিষ্ট কোন একটি উপসর্গ বা নির্দিষ্ট কোনো একটি রোগ নিয়ে সারাক্ষণ ভাবতে থাকে। কিছুতেই তাকে বোঝানো সম্ভব হয়না। এমনকি পরীক্ষা নিরীক্ষা সহ সমস্ত প্রমানাদি তার চিন্তার সাথে না মিললে বা উল্টো হলেও সে সেটা কিছুতেই মেনে নিতে চায়না। ফলে রোগের চিন্তা তাকে কুড়ে কুড়ে খায়। স্বাভাবিক জীবন ব্যাহত হয়। নিজের কাজে মনোযোগ দিতে পারেনা। সমস্যাটির পিছনে প্রচুর সময় ও অর্থ ব্যয় হয়।  এমনকি ধীরে ধীরে কর্মক্ষমতা হ্রাস পায়। আশেপাশের মানুষ বা আত্মীয়স্বজন প্রচুর বোঝানোর চেষ্টা করলেও কাজে লাগেনা। মানুষটি একা চলতে শুরু করে। বিষণ্ণতা তাকে পেয়ে বসে। সাধারণ বিষণ্ণতা আর সাধারণ থাকেনা। বিষণ্ণতা রোগে পরিণত হয়। খাওয়া দাওয়া ঘুম থেকে শুরু করে সব কিছুতেই তখন সমস্যা শুরু হয়। রোগটির নাম ইলনেস এনজাইটি ডিজঅর্ডার। আগে বলা হতো, হাইপোকন্ড্রিয়াসিস। এই রোগের চিকিৎসা যত তাড়াতাড়ি শুরু হবে ততই ভালো। আর দেরি না করে একজন মনোরোগ বিশেষজ্ঞের তত্ত্বাবধানে চিকিৎসা শুরু করুক। চিকিৎসাতেও অনেক সময় লাগবে। আত্মীয় বা অভিভাবক হিসেবে আপানাদের ধৈর্য খুবই দরকার। মনে রাখতে হবে সে ইচ্ছা করে এটা করেনা। রোগের কারণেই করে। সুতরাং ভালো হতে হলে তার চিকিৎসাই লাগবে। অন্যকোনো ভাবে হবেনা। মনের খবরে এ বিষয়ে আগেও লেখা গেছে। একটির লিংক দেয়া হলো। সবাই পড়বেন। তাহলে বুঝতে সুবিধা হবে।

লিংক দেখুন: https://www.monerkhabor.com/featured/2016/10/20/7737/

 

ইতি,
প্রফেসর ডা. সালাহ্উদ্দিন কাউসার বিপ্লব
  • চেয়ারম্যান ও অধ্যাপক - মনোরোগবিদ্যা বিভাগ, বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়।
  • সেকশন মেম্বার - মাস মিডিয়া এন্ড মেন্টাল হেলথ সেকশন অব 'ওয়ার্ল্ড সাইকিয়াট্রিক এসোসিয়েশন'।
  • কোঅর্ডিনেটর - সাইকিয়াট্রিক সেক্স ক্লিনিক (পিএসসি), মনোরোগবিদ্যা বিভাগ, বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়।
  • সাবেক মেন্টাল স্কিল কনসাল্টেন্ট - বাংলাদেশ ন্যাশনাল ক্রিকেট টিম।
  • সম্পাদক - মনের খবর। চেম্বার তথ্য - ক্লিক করুন