মূল পাতা / প্রতিদিনের চিঠি / আত্মহত্যার ইচ্ছা জাগে

আত্মহত্যার ইচ্ছা জাগে

আমাদের প্রতিদিনের জীবনে ঘটে নানা ঘটনা,দুর্ঘটনা। যা প্রভাব ফেলে আমাদের মনে। সেসবের সমাধান নিয়ে ‘প্রতিদিনের চিঠি’ বিভাগ। এই বিভাগে প্রতিদিনই আসছে নানা প্রশ্ন। যেগুলোর উত্তর দিচ্ছেন অধ্যাপক ডা. সালাহ্‌উদ্দিন কাউসার বিপ্লব। আমাদের আজকের প্রশ্ন পাঠিয়েছেন শফিক রহমান (ছদ্মনাম) –

প্রতিদিনের চিঠি

চিঠি

আমি পাগলামী ভাবে কথা বলি, আমার কথা শুনে সবাই পাগল মনে করে, আমার আচার ব্যবহার কেউ সন্তুষ্ট হয় না, আর মানুষের সাথে কিভাবে চলতে হবে তা বুঝতে পারি না, কেউ আমার সাথে মজা করে কথা বললে আমি অল্পতেই রেগে যাই, আর কারো সাথে ঝগড়া লাগলে তাদেরকে মারতে যাই। আত্মহত্যার ইচ্ছা জাগে। ছোটবেলা থেকেই এই সমস্যা৷ আমি এখন কি করব?

উত্তর

আপনি ভালো একটি বিষয়ে প্রশ্ন তুলেছেন। এমন অনেক ধরনের সমস্যা আমাদের অনেকেরই হয়ে থাকে বা আছে। তবে সেসব আমরা সমস্যা মনে করিনা বা কখনো এসবের সমাধানের কথা জানতে চাইনা। এমন কি চেষ্টাও করিনা। নিজের ভালো থাকার জন্য বা ভালো চলার জন্য, সবার সাথে সময় উপযোগী হয়ে কাজ করার জন্য, কিছু স্কিল বা দক্ষতা দরকার হয়। বিভিন্ন কারণে অনেক সময় আমরা সেসব শিখতে পারিনা। শিখা হয়ে উঠেনা। মনে রাখবেন সব সময়ে সেটা নিজের দোষে হয়না। এমনকি অনেক সময় সেসব নিজের উপর নির্ভরও করেনা। পরিবেশ, পরিবার, অভিভাবক বা চারদিকের অনেক কিছুর উপর এসব নির্ভর করে।

তবে এসব বিষয় অনেক সময় অনেক বড় বিষয় হিসেবে দাড়ায়। যেমন আপনি একধরনের অস্বস্থিকর অবস্থার ভিতর দিয়ে যাচ্ছেন। নিশ্চয়ই এই সমস্যাগুলর জন্য আপনার চলতে ফিরতেও সমস্যা হচ্ছে। তাই নিজেই বিষয়টি বুঝতে পেরেছেন এবং তার সমাধানের জন্য জানতে চেয়েছেন। মানুষের সাথে বা পরিবেশের সাতে সমঝোতা করে চলাকে সোশাল স্কিলনেস বা সামাজিক দক্ষতা বলে। এটা অন্যের সাথে সাধারণ যোগাযোগরে বড় উপায়। বেশীরভাগ ক্ষেত্রেই মানুষ এমনি এমনি এসব শিখে নেয়। কিন্তু কখনো কখনো প্রফেশনাল বা পেশাগত সাহায্য প্রয়োজন হয়। আপনি কোথায় আছেন জানিনা। সোশাল স্কিল নিয়ে কাজ করে এমন অনেক সংগঠন এখন ঢাকায় আছে। আমাদের বঙ্গবন্ধু মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়ের মনোরোগবিদ্যা বিভাগেও এই কাজটি হয়। যোগাযোগ করতে পারেন। আপনি আপনার কাছের কোনো মেডিকেলের মনোরোগ বিদ্যা বিভাগে যোগাযোগ করতে পারেন। নিজেও ইন্টারনেট থেকে কিছু টিপস বা সাজেশণ বের করে পড়তে পারেন। কিছুটা উপকারতো হবেই।

মানুষ যখন পরিবেশকে ঠিক মতো নিয়ন্ত্রন করতে পারেনা তখনই মানুষ খুব বেশী রেগে যায়। নিয়ন্ত্রন হারিয়ে ফেলে। নিজের উপর নিয়ন্ত্রন রক্ষা করা এক ধরনের দক্ষতা। আর আত্মহত্যর কথা বলেছেন, এটা একজমেরন মনে বা চিন্তায় আসাই উচিত না। কারন এটা কোনো পথনা। আপনি অন্য কোনো রোগ না থাকলে আপাতত টেবলেট প্রোপানল ১০ মিগ্রা, একটা করে রাতেও সকালে খেতে পারেন। তবে সোশাল স্কিল শিক্ষা আপনার জন্য বেশী উপকারী হবে। ভালো থাকেন। মনের খরব পড়বেন। সমস্যা হলে জানাবেন। ধন্যবাদ।

ইতি,
প্রফেসর ডা. সালাহ্উদ্দিন কাউসার বিপ্লব
  • চেয়ারম্যান ও অধ্যাপক - মনোরোগবিদ্যা বিভাগ, বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়।
  • সেকশন মেম্বার - মাস মিডিয়া এন্ড মেন্টাল হেলথ সেকশন অব 'ওয়ার্ল্ড সাইকিয়াট্রিক এসোসিয়েশন'।
  • কোঅর্ডিনেটর - সাইকিয়াট্রিক সেক্স ক্লিনিক (পিএসসি), মনোরোগবিদ্যা বিভাগ, বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়।
  • সাবেক মেন্টাল স্কিল কনসাল্টেন্ট - বাংলাদেশ ন্যাশনাল ক্রিকেট টিম।
  • সম্পাদক - মনের খবর। চেম্বার তথ্য - ক্লিক করুন