মূল পাতা / প্রতিদিনের চিঠি / অকারণে মেজাজ খারাপ করে আর হাসে

অকারণে মেজাজ খারাপ করে আর হাসে

আমাদের প্রতিদিনের জীবনে ঘটে নানা ঘটনা,দুর্ঘটনা। যা প্রভাব ফেলে আমাদের মনে। সেসবের সমাধান নিয়ে মনের খবর এর বিশেষ আয়োজন ‘প্রতিদিনের চিঠি’ বিভাগ। এই বিভাগে প্রতিদিনই আসছে নানা প্রশ্ন। যেগুলোর উত্তর দিচ্ছেন । আমাদের আজকের প্রশ্ন পাঠিয়েছেন থেকে আশিকুল ইসলাম (ছদ্মনাম)-

প্রতিদিনের চিঠি

চিঠি

আমার ছোট বোনের বয়স ২১ বছর।অনার্স থার্ড ইয়ারে পড়ে। যেকোন মানুষ সম্পর্কে তার একটা নেগেটিভ ধারনা কাজ করে। সে খুবই অপ্রাসঙ্গিক কথা বলে। ও যখন কথা বলে পুরাই উল্টাপাল্টা কথা বলে। অকারণে মেজাজ খারাপ করে আর অকারণে হাসে নিজে নিজে। বাইরে গেলে এক্টু বেশি রিয়েক্ট করে,অস্বাভাবিক আচরণ করে। সারাক্ষণ অন্যমনস্ক আর সবকিছুতেই অমনোযোগী থাকে। যখন কথা বলে সে নিজেও জানেনা সে কি কথা বলতেছে। ওর যখন যা মন চায় তা করতে পছন্দ করে। মানুষের সাথে ওর মেলামেশা কম। মিশতে পারে না সবার সাথে।মিশতে চায়ও না। ঘুমের ব্যাপারে খুব সেন্সেটিভ। হালতা একটু সাউন্ড হলেই ওর ঘুম ভেঙে যায়। নিরিবিলি থাকতে পছন্দ করে। এখন মেজর কথা হচ্ছে,ও সবার সামনে উল্টাপাল্টা কথা বলে। একটা জিনিস জানে বুঝে তারপরে এটা সম্পর্কে জিজ্ঞেস করে। এরপর এটার উত্তর শোনার আগেই আরেকটা টপিক নিয়ে কথা শুরু করে দেয়। ও মেসে বা হলে থাকে না,বাসায় থাকে। বাসায় আমার মা-বাবা আর ও থাকে।। এ সমস্যাগুলার জন্য কি করতে হবে? এর সমাধান কি?

 

 

 

উত্তর

আপনার বোনের সমস্যা কতদিনের? কথা শুনে মনে হচ্ছে ওর বেশ ভালোই সমস্যা আছে। উল্টাপাল্টা কথা বলে, অন্যমনস্ক থাকে, মেজাজ খারাপ করে, নিজে নিজে হাসে, আস্বাভাবিক আচরণ করে, একা একা থাকে, সম্ভবত সন্দেহও করে।  এমন এতোগুলো সমস্যা নিয়ে আপনারা দেরী করছন কেনো? আমার তো মনে হয় আরো আগেই ওর চিকিৎসার ব্যবস্থা করানো উচিত ছিলো। আপনারা যেখানেই থাকেন, দেরী না করে যত তাড়াতাড়ি সম্ভব একজন মনোরোগ বিশেষজ্ঞ দেখান। শারীরিক কোনো সমস্যা আছে কিনা সেটার জন্য প্রয়োজনীয় পরীক্ষা নিরীক্ষাও করাতে হবে। যত তাড়াতাড়ি চিকিৎসা শুরু করাবেন ততই ভালো। এ প্রসঙ্গে আপনাকে কয়েকটা কথা বলে রাখি। অনেকেই আপনাকে অনেক ধরনের বুদ্ধি দিতে পারেন সেসবে অবশ্যই গুরুত্ব দিবেন না। এটা অবশ্যই রোগ, এ বিষয়ে কোনো সন্দেহ করবেন না। আপনি অবশ্য সেসব করেননি বলেই আমাদের সাথে যোগাযোগ করেছেন। আপনাকে আবারও ধন্যবাদ জানিয়ে, বোনের দ্রুত চিকিৎসার ব্যাবস্থা নিতে অুনরোধ করছি। সবাই মিলে ভালো থাকবেন।

ইতি,
প্রফেসর ডা. সালাহ্উদ্দিন কাউসার বিপ্লব
  • চেয়ারম্যান ও অধ্যাপক - মনোরোগবিদ্যা বিভাগ, বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়।
  • সেকশন মেম্বার - মাস মিডিয়া এন্ড মেন্টাল হেলথ সেকশন অব 'ওয়ার্ল্ড সাইকিয়াট্রিক এসোসিয়েশন'।
  • কোঅর্ডিনেটর - সাইকিয়াট্রিক সেক্স ক্লিনিক (পিএসসি), মনোরোগবিদ্যা বিভাগ, বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়।
  • সাবেক মেন্টাল স্কিল কনসাল্টেন্ট - বাংলাদেশ ন্যাশনাল ক্রিকেট টিম।
  • সম্পাদক - মনের খবর। চেম্বার তথ্য - ক্লিক করুন