মূল পাতা / ফিচার / দীর্ঘ দিনের ব্যথা কি মানসিক রোগ!

দীর্ঘ দিনের ব্যথা কি মানসিক রোগ!

ব্যথা বেদনা শব্দটাই অনেকের কাছে ব্যথার কারণ হয়ে দাঁড়ায়। আমাদের চারপাশে অনেককেই ব্যথা নিয়ে ব্যস্ত দেখা যায়। অনেকে আছেন অনেকদিন যাবৎ ভুগছেন। অনেক ডাক্তার, কবিরাজ, ব্যায়াম সহ অনেক জায়গায় ঘুরে ঘুরে শ্রান্ত হওয়ার পরেও ব্যথা থেকে মুক্তি মিলেনি। অনেক চেষ্টার পরেও অনেক ব্যথার উপযুক্ত কারণ খুঁজে পাওয়া যায় না। এখানে যে আলোচনা করা হচ্ছে তার পুরোটাই হলো  কারণ খুঁজে না পাওয়া দীর্ঘ দিনের ব্যথা নিয়ে।

ব্যথা সময়ের উপর নির্ভর করে দুই ভাগে ভাগে করা হয়। স্বল্প সময়ের জন্য তীব্র ব্যথার সাধারণত কারণ খুজে পাওয়া যায়। কারণ অনুযায়ী চিকিৎসা দিলে উপসর্গের বিলুপ্তিও দ্রুত হয়ে থাকে। সাধারণত তিন মাসের বেশি দীর্ঘ সময়ের ব্যথাকে দীর্ঘ দিনের ব্যথা হিসাবে চিহ্নিত করা হয়। দীর্ঘ দিনের ব্যথার কিছু ক্ষেত্রে কারণ পাওয়া যায়, কিছু ক্ষেত্রে কারণ পাওয়া যায় না।

যেসব জায়গায় কারণ পাওয়া যায় তার বেশির ভাগই ব্যথা পুরোপুরি উপশম হয় না, নিয়ন্ত্রণে থাকে মাত্র। যেগুলো কারণ নির্ণয়ের জন্য অনেক কষ্ট হয় সে ব্যথা নিয়ে রোগীদের কষ্টও বেশি হয়। অনেক গবেষণায় দেখা গেছে দীর্ঘ দিনের ব্যথায় শারীরিক কারণ খুব কমই পাওয়া যায়। অনেকে মন্তব্য করেছেন দীর্ঘ দিনের ব্যথা ব্রেইনের রোগ। অনেক গবেষক সেটার কারণ অনেক ভাবে ব্যাখ্যা করার চেষ্টা করেছেন। অনেকে বলেছেন মনের অস্বস্তি শরীরের ব্যথার মাধ্যমে প্রকাশ পায়। অনেকে বলেছেন ছোট বেলার অনেক ভুলে যাওয়া কষ্ট এই ব্যথার কারণের সাথে যুক্ত। আবার অনেকে প্রমাণ করার চেষ্টা করেছেন দীর্ঘ দিনের ব্যথার ফলে শরীরে আসলেই হরমোনের কিছু পরিবর্তন হয় যেটা ব্যথাকে আরও কষ্টদায়ক করে ফেলে। অনেকে বলেছেন ব্যথার সাথে আমাদের পারিপার্শ্বিক অবস্থা, সামাজিক ধারণা ও নীতি, মানসিক, অর্থনৈতিক কোনো অর্জন যুক্ত থাকতে পারে।

ইউরোপ, আমেরিকায় কম হলেও আমাদের উপমহাদেশে মানসিক অনেক রোগের জন্য এটা দেখা যেতে পারে। যেমনঃ বিষণ্ণতা, উদ্বেগ জাতীয় রোগের লক্ষণ হিসাবে দেখা যায়। ব্যক্তিত্বের অসুবিধা, কম সামাজিক সম্পর্ক, কম দৈনন্দিন কাজকর্ম, কম লেখাপড়া এগুলোর সঙ্গে দীর্ঘ দিনের ব্যথার সম্পর্ক দেখা যায়।

monon-600

দীর্ঘ দিনের ব্যথা চিকিৎসার জন্য একজন মনোরোগ বিশেষজ্ঞের মতামত অত্যন্ত জরুরি, যেটা সঠিক রোগ নির্ণয় ও সঠিক চিকিৎসার পদ্ধতি বাতলানোর জন্য। এ রোগের চিকিৎসায় ঔষধ, সাইকথেরাপি, পারিবার অন্তরভুক্তি, দৈনন্দিন কাজের নিয়মাবলীসহ সার্বিক সমন্নয় প্রয়োজন। উন্নত দেশে দীর্ঘ দিনের ব্যথা চিকিৎসায় মনোরোগ বিশেষজ্ঞসহ অনেক বিভাগের বিশেষজ্ঞ মিলে বিশেষ দলের সমন্বয়ের সার্বিক সেবা প্রদান করা হয়।