মূল পাতা / জীবনাচরণ / কাটিয়ে উঠুন ঈদ-পরবর্তী বিষণ্ণতা

কাটিয়ে উঠুন ঈদ-পরবর্তী বিষণ্ণতা

আপনিও কি তাদের দলে যাদের এখনও ঘুম ভাঙছে ঈদের ছুটির স্বপ্ন দেখে আর ব্যস্ত জীবনে ফেরার আতঙ্কে হৃদয় হচ্ছে শত টুকরো? তাহলে আপনার জন্যই এই আর্টিকেলটি।

ছুটির আমেজ এখনও যাই যাই করছে, কিন্তু কাটিয়ে উঠতে পারছিনা কেউই। অফিস হোক, বা হোক কলেজ/ইউনিভার্সিটি, সেই রুটিন মাফিক জীবনে ফিরে যাওয়াটা এখন দুঃস্বপ্ন মনে হচ্ছে! তাই ঈদ-পরবর্তী বিষণ্ণতা কাটিয়ে নিজেকে আবার রুটিনে ফিরিয়ে আনতে সবার জন্য কিছু টিপস!

১. অল্প দিয়ে শুরু করুন:

ছুটির পর কাজের প্রথম দিন থেকেই পাগলের মতো ছুটাছুটি করার দরকার নেই। এতে দিন শেষে শরীর বেশি ক্লান্ত হয়ে যেতে পারে এবং ছুটির কথা মনে করে মন হয়ে যাবে বিষন্ন। এর চেয়ে প্রথম ২/১ দিন অল্প অল্প কাজ শুরু করুন, একটু আস্তে ধীরে কাজ বাড়াতে থাকুন। অফিসের কাজ তখন খুব বেশি চাপ মনে হবে না। আপনার উর্ধ্বতন কর্মকর্তারাও ছুটি থেকেই ফিরছেন, সবাই বুঝবেন।

২. খাওয়া-দাওয়ায় নিজেকে একটু প্রশ্রয় দেয়া যেতে পারে :

ঈদের রান্না তো নিশ্চই কিছুদিন বাসায় থাকেই। এরপরেও অফিসের প্রথম কয়েকদিন লাঞ্চের জন্য ছুটিকালীন কিছু খাবার আবার রান্না করুন। বা কয়েকদিন লাঞ্চ করতে পছন্দের কোনো রেস্তোরায় যেতে পারেন। ছুটির পর কাজে সফলভাবে ফিরে আসার জন্য নিজেকে ট্রিট দিন! তবে খুব বেশি অনিয়মে গা ভাসিয়ে দিবেন না। মন ঠিক রাখার প্রথম শর্ত শরীর ভালো রাখা, তাই খাওয়া দাওয়া ঠিক মতো করতে হবে।

৩. সবার সাথে ছুটির দিনগুলোর গল্প শেয়ার করুন :

একটানা অফিসের কাজ করতে বোরিং লাগতে পারে। মাঝে মাঝে একটু ব্রেক নিয়ে কলিগদের সাথে ছুটিতে কে কি করলেন তা নিয়ে গল্প করুন। সুন্দর সময়ের কথার স্মৃতিচারণাও মনকে করে প্রফুল্ল। এছাড়া, অন্যদের গল্প শুনে আপনি বুঝতে পারবেন যে আপনি এক নন, এতেও বিষন্নতা কাটবে।

৪. পরবর্তী ট্রিপ-এর প্ল্যানিং শুরু করে দিন :

একটা ট্রিপ বা টুর প্ল্যান করার সময়েই আমরা মানসিক ভাবে সবচেয়ে বেশি খুশি থাকি। তাই নিজেকে কাজের প্রতি মোটিভেটেড রাখতে এখন থেকেই প্ল্যান করতে থাকুন পরবর্তী ছুটিতে কোথায় যাবেন, কি কি করবেন। নিজেকে সেখানে কল্পনা করুন, দেখবেন মন অনেক বেশি ভালো থাকবে।

ছুটিতে ঘরে বসে দিন কাটিয়ে যে আলসেমি আর বাড়তি ওজন গায়ে লাগিয়েছি তা ঝেড়ে ফেলতে কিছু সময় তো লাগবেই! নিজেকে “ব্যাক অন ট্র্যাক” হওয়ার জন্য সেই সময়টুকু দিন, শরীর ও মন দুটিই ভালো থাকবে।