মূল পাতা / জীবনাচরণ / স্বামী-স্ত্রী’র সম্পর্ক সুন্দর রাখতে করণীয়

স্বামী-স্ত্রী’র সম্পর্ক সুন্দর রাখতে করণীয়

বিয়ে হচ্ছে সামাজিক একটা রীতি। আর দুজন দুজনের পাশে থাকাকে অনেকে অনেক কিছু বলে আখ্যায়িত করে থাকে। কেউ এটাকে বলে দায়বদ্ধতা। কেউবা এটাকে বলে মায়ার বন্ধন। তবে যে যাই বলুক না কেনো স্বামী-স্ত্রীর সম্পর্ককে সুন্দর রাখার জন্য কতগুলো বিষয়ে গুরুত্ব দেওয়াটা আবশ্যক।

প্রশংসা: একবার ভাবুন তো, নিজের প্রশংসা শুনতে আপনি ভালোবাসেন কি না? নিশ্চয়ই ভালোবাসেন। তাহলে আপনার সঙ্গীরও নিশ্চয়ই আপনার কাছ থেকে প্রশংসা শুনতে ভালোলাগবে। তাই ছোটখাটো ব্যাপারেও সঙ্গীর প্রশংসা করুন মন খুলে! দেখবেন তিনিও কেমন আপনাকে ভালোবাসায় আর সম্মানে ভরিয়ে দেন!

আপোস: সুসম্পর্ক বজায় রাখতে আপোসের মনোভাব থাকাও জরুরি। অপর একজন মানুষ কখনোই পুরোপুরি আপনার মনের মতো হবেন না। তেমনই আপনিও শতভাগ তার মনের মতো নন। তাই সম্পর্ক সুন্দর রাখতে ছোটখাটো ইগো বিসর্জন দিতে হবে, আপোস করার জন্যও তৈরি থাকতে হবে। মনে রাখবেন আপোস করা মানে ছোট হয়ে যাওয়া নয়। ছোটখাটো রাগ পুষে রাখবেন না, জীবনটাকে উপভোগ করতে শিখুন।

সহমর্মিতা: পারস্পারিক চমৎকার বোঝাপড়াই পারে যেকোনো সম্পর্ককে টিকিয়ে রাখতে। শুধু তাই নয়, অপরজনের জায়গায় দাঁড়িয়ে এই সহমর্মিতার বোধ থাকতে হবে। সম্পর্কে পারস্পরিক সহানুভূতির জায়গা থাকলে আপনার সঙ্গীরও নিজেকে গুরুত্বপূর্ণ বলে মনে হবে। সফল বিয়ের জন্য এই পারস্পরিক বোঝাপড়াটা খুব দরকার।

হাসুন: আপনার একটুখানি হাসিই পারে অনেক ক্লান্তি আর মন খারাপকে উড়িয়ে দিতে। তাই জীবনের ছোট ছোট আনন্দগুলো পুরোদমে উপভোগ করুন। নিজেদের নিয়ে মজা করতেও ছাড়বেন না। একসঙ্গে হাসতে পারলে, জীবনে রসবোধ থাকলে বাকি জীবনটাও আনন্দে ভরে উঠবে।

আস্থা রাখুন: স্বামী-স্ত্রী সম্পর্কটাই হলো আস্থা এবং নির্ভরতার। সঙ্গীর বিশ্বস্ততা নিয়ে সন্দেহ পুষে রাখবেন না, তেমন হলে কিন্তু আপনাদের সম্পর্ক টিকবে না। সন্দেহ, ভয়, এসব কাটিয়ে উঠুন, দেখবেন দাম্পত্যজীবন প্রথম দিনগুলোর মতোই ঝলমল করছে।