হতাশার সময়

হতাশার সময় যেসব কাজ থেকে বিরত থাকবেন

জীবনে সবকিছুই সবসময় নিজের অনুকূলে থাকে না।  জীবনে কখনো কখনো আসে হতাশার সময়। কীভাবে এই হতাশা থেকে নিজেকে মুক্ত রাখবেন তা জানা খুব জরুরি।

এক মনীষী একবার বলেছিলেন, “প্রকৃতিতে এমন কিছুই নেই যা সারাবছর ধরে প্রস্ফুটিত হয়, তাই নিজের ক্ষেত্রেও এমন আশা করবেন না।” সবকিছুই সবসময় নিজের অনুকূলে থাকে না। জীবনে কখনো কখনো আসে হতাশার সময়। কীভাবে এই হতাশা থেকে নিজেকে মুক্ত রাখবেন তা জানা খুব জরুরি।

আসুন জেনে নেই ৫টি এমন কাজ যা আমাদের করা উচিত নয় যখন আমরা হতাশ থাকি:

১. নিজের কষ্টকে অন্যের কষ্টের সাথে তুলনা করবেন না

প্রতিটি মানুষের জীবনের পরিস্থিতি ভিন্নরকম হয়। তাই কখনোই অন্যের কষ্ট বা আনন্দের সাথে নিজের পরিস্থিতির তুলনা করবেন না। এতে ভালো কিছু তো হবেই না বরং অহেতুক চাপ পড়বে মনে।

২. আপনার জন্য গুরুত্বপূর্ণ নয় এমন জিনিসে কম মনোযোগ দিন

যখনই হতাশা ঘিরে ধরবে, তখন মাথায় রাখুন কোন ব্যাপারটি আপনার জন্য বেশি গুরুত্বপূর্ণ আর কোনটি কম গুরুত্বপূর্ণ। যদি আমরা নিজেদের কম প্রয়োজনীয় জিনিসে শক্তি নষ্ট করে ফেলি, তবে আসল যেটি বেশি দরকার তা থেকে আমরা দূরে সরে যাব। ফলে হতাশা বাড়তেই থাকবে।

৩. আগে যা করতে পারতেন তা নিয়ে আশা করা বন্ধ করুন 

আগে হয়ত কেউ শারীরিক বা মানসিকভাবে শক্ত ছিল অথবা হাতে বেশ অঢেল সময় ছিল, তাই যেকোনো সমস্যার সমাধান সহজে করতে পারত। কিন্তু সময়ের সাথে সাথে আমরা পরিবর্তন হই। আগে আমরা যা ছিলাম এখন আমরা তেমন নেই। তাই আগে যা আমরা করতে পারতাম তা এখনও পারব এমন আশা করা উচিত নয়।

৪. ‘আমি পিছিয়ে পড়ছি’ কথাটা মনে করা বন্ধ করুন 

আমরা আমাদের কঠিন সময়ে নিজেকে অনেক বেশি চাপ দেই, অনেক বেশি কিছু করার চেষ্টা করি এবং নিজের চাওয়া পাওয়ার হিসেব মিলেতে ব্যস্ত হয়ে উঠি। ফলে নিজের সামান্য ভুল দেখে মনে হয় আমি পিছিয়ে যাচ্ছি। কাজেই আজ থেকে এসব ভাবা বন্ধ করুন।

৫. নিজেকে বেশি চাপ দেবেন না 

কষ্টের সময়ে আমরা নিজেদের অনেক সময় অনেক চাপ দেই। নিজের সামর্থ্যের চেয়েও বেশি কিছু করতে যাই। তবে সবসময় মনে রাখা দরকার, যা হবে নিজের মত হবে। তাই নিজেকে বেশি চাপ দিয়ে কিছু করবেন না। এত হিতে বিপরীত হবে।

সূত্র: ঢাকা ট্রিবিউন