যশোর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের মনোরোগ বিভাগ 1

যশোর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের মনোরোগ বিভাগ

মনের খবর.কমের পাঠকদের জন্য থাকছে দেশের মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয় ও মেডিকেল কলেজের মনোরোগ বিভাগের বিস্তারিত তথ্য। প্রত্যেক প্রতিবেদনে থাকছে একটি করে টেবিল। টেবিলে বিভাগের লোকবল, সেবা ইত্যাদি সংবলিত প্রয়োজনীয় বিভিন্ন তথ্য থাকবে। ধারাবাহিক প্রতিবেদনের আজকের পর্বে থাকছে যশোর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের মনোরোগ বিভাগ।

পরিচিতি
স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের অধীনে স্বাস্থ্য, জনসংখ্যা ও পুষ্টি উন্নয়ন প্রকল্পের আওতায় ২০১২ সালে ২৫ একর জমিতে যশোর মেডিকেল কলেজ ও হাসপাতাল নির্মাণ কাজ শুরু হয়। ৩০ কোটি টাকা ব্যয়ে নির্মিত কলেজের একাডেমিক ও প্রশাসনিক ভবন পাশাপাশি হাসপাতালে রয়েছে ৫শ শয্যা। হাসপাতালে মেডিকেল কলেজের ৪জন ও বিভিন্ন উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের ৬ জনসহ মোট ১৯জন চিকিৎসক ও ৩০জন সেবিকা সার্বক্ষণিক চিকিৎসা সেবা দেয়ার দায়িত্বে রয়েছেন।

লোকবল
যশোর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের মনোরোগ বিভাগে চাকুরিরত রয়েছেন মাত্র একজন। তিনি হচ্ছেন সহকারী অধ্যাপক ডা. মো. আমিনুর রহমান। এছাড়া কোনো নার্স, মেডিকেল অফিসার নেই বিভাগটিতে।

পদ খালি
যশোর মেডিকেল কলেজের মনোরোগবিদ্যা বিভাগে কোনো পদ নেই। কিছুদিন আগে একজন অধ্যাপকের পদ পাশ হয়েছে।

বহির্বিভাগ
মনোরোগবিদ্যা বিভাগে শুধু বহির্বিভাগ সেবা চালু আছে। বহির্বিভাগ ১০ টাকা টিকেট ফিতে রোগী দেখা হয়। সপ্তাহের তিন দিন রবি, মঙ্গল ও বৃহস্পতিবার সকাল ৮টা থেকে দুপুর আড়াইটা পর্যন্ত চলে রোগী দেখার কার্যক্রম।

জরুরি সেবা
এ বিভাগে রোগীদের জন্য জরুরি সেবা চালু নেই।

সাইকোথেরাপি (কাউন্সেলিং)
অন্তর্বিভাগে ভর্তি হওয়া মানসিক রোগীদের সাইকোথেরাপি ও কাউন্সেলিং সেবা প্রদান করা হয়। এছাড়াও মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে অন্যান্য বিভাগ থেকে রেফার্ডকৃত রোগীদের এখানে সেবা প্রদান করা হয়।

শিক্ষা কার্যক্রম
এ মেডিকেল কলেজ থেকে পাঁচ বৎসর মেয়াদী শিক্ষা কার্যক্রম শেষ করে শিক্ষার্থীরা এমবিবিএস ডিগ্রি প্রাপ্ত হয়। এ কলেজে অন্যান্য বিভাগে এমডি কোর্স চালু থাকলেও তা মনোরোগ বিভাগে চালু নেই। এ বিভাগ থেকে কোনো পোস্ট গ্রাজুয়েট ডিগ্রি দেয়া হয় না।

এছাড়া এখানে গবেষণার কাজ ব্যক্তিগতভাবে করা হয়। মেডিকেল কলেজটি নতুন হওয়ায় এখানে বিভাগ থেকে কোনো সেমিনার, কনফারেন্স ইত্যাদির আয়োজন শুরু হয় নি।

jmc


জাহিদ হাসান
প্রতিবেদক, মনের খবর.কম