পাইলটদের মানসিক স্বাস্থ্য পরীক্ষা বাধ্যতামূলক করলো কতৃপক্ষ 1

পাইলটদের মানসিক স্বাস্থ্য পরীক্ষা বাধ্যতামূলক করলো কতৃপক্ষ

12834982_967863089975449_152325450_n

উড্ডয়ন পূর্ববর্তী পাইলটদের মানসিক স্বাস্থ্য পরীক্ষা বাধ্যতামূলক করার কথা বললো জার্মানউইংস-এর বিধ্বস্ত বিমানের ফরাসী তদন্তকারীগণ।

গত বছর মার্চে ফ্রান্সের পর্বতের পাশ দিয়ে উড়ে যাচ্ছিল এয়ারবাস ৩২০। হঠাৎ পাইলটকে বাহিরে রেখে ককপিট বন্ধ করে দেন কো-পাইলট এন্দ্রেস লুবিতজ। বিধ্বস্ত করান বিমানটিকে। এতে ১৫০ জন নিহত হন। যাদের মধ্যে ১৪৪ জন যাত্রী এবং ৬ জন বিমান ক্রু ছিল।

২৭ বছর বয়স্ক লুবিতজ অবসাদে ভুগছিলেন। বিমান বিধ্বস্ত হওয়ার আগে সে বছরই ডাক্তাররা তা অনেকবার দেখেছিলেন। তা সত্ত্বেও তিনি বিমান চালানোর অনুমতি পেয়েছিলেন, কারণ এই তথ্যগুলো অ্যারোনটিক্যাল কতৃপক্ষকে জানান হয়নি বলে জানান তদন্তকারী কর্মকর্তা আর্নাউড ডেস্জারদিন।

এই মর্মান্তিক ঘটনা বিমান চালনার নিরাপত্তার বিষয়ে অভূতপূর্ব প্রশ্নের জন্ম দিয়েছে।

বিইএ সিভিল এভিয়েসন বিশেষজ্ঞরা এই দুর্ঘটনার ব্যাপারে চূড়ান্ত সিদ্ধান্তে প্রস্তাব করেছেন,পাইলটদের কঠোর মেডিকেল চেকআপের ব্যবস্থা করতে। তবে ফ্লাইট ডেকের দরজার প্রচলিত নিয়ন্ত্রণ ব্যবস্থা যা শুধু ককপিট থেকে খোলা যায়, তার পরিবর্তনে আপাতত কিছু জানায় নি। মূলত যে কোনো সন্ত্রাসি অনুপ্রবেশ ঠেকাতে আগের ব্যবস্থা বহাল রাখার কথা জানান হয়েছে।

পাইলটের মনস্তাত্ত্বিক এবং মানসিক সমস্যা বিষয়ে নিয়মিত পরীক্ষা করার প্রস্তাব করা হয় প্রতিবেদনে।

“জার্মান পাইলট ইউনিয়ন” ফ্রান্সের তদন্ত সংস্থার এইসব প্রস্তাবনায় স্বাগত জানিয়েছে।

“ইউরোপিয়ান এভিয়েসন সেফটি এজেন্সি” ইতিমধ্যেই পাইলটের মনস্তাত্ত্বিক পরীক্ষার বিভিন্ন ধাপের প্রস্তাবনা দিয়েছে।

সেই সাথে ইউরোপিয়ান এভিয়েসন কতৃপক্ষ উড্ডয়ন চলাকালীন সব সময় বিমানের ককপিটে দুইজন থাকা বাধ্যতামূলক করার প্রস্তাব করেছে। তবে ককপিটে দুই জনের বাধ্যতামুলক থাকার ব্যাপারে অনেক দেশ দ্বিমত জানিয়েছে।

বিধ্বস্ত এয়ারবাস ৩২০ এর মূল কোম্পানি “ লুফথানসা” প্রত্যেক ভিক্টিমের জন্য তাদের পরিবারকে প্রাথমিকভাবে ৫০,০০০ ইউরো দিয়েছে। পরবর্তীতে আরও ২৫,০০০ ইউরো দেবে বলে জানিয়েছে।

এভিয়েসন লয়ার জিম মরিস বলেন, “কোনো কিছুই সেই নিরপরাধ জীবনগুলোকে ফিরিয়ে দিতে পারবে না। তবু ভিকটিমদের পরিবারের একটাই চাওয়া, যেন এই দুর্ঘটনা থেকে গুরুত্বপূর্ণ শিক্ষা নেয়া হয়।”

তথ্যসূত্র: ইয়াহু নিউজ

মাসাফি আহমেদ ফেরদৌস অনিক, আন্তর্জাতিক ডেস্ক
মনেরখবর.কম