মূল পাতা / সংবাদ / সাইাকিয়াট্রিস্টদের পদ বৃদ্ধি ও সাইকিয়াট্রির বৈষম্য দূর করাই প্রধান লক্ষ্য

সাইাকিয়াট্রিস্টদের পদ বৃদ্ধি ও সাইকিয়াট্রির বৈষম্য দূর করাই প্রধান লক্ষ্য

বিএপি’র নতুন কমিটির দায়িত্ব নিয়ে বললেন সভাপতি ও সাধারন সম্পাদক

বাংলাদেশের সকল স্থানে বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানে সাইাকিয়াট্রিস্টদের জন্য নতুন নতুন পদ সৃষ্টি ও আন্ডার গ্রাজুয়েশন পর্যায়ে সাইকিয়াট্রি সাবজেক্টকে আরো বেশি জনপ্রিয় করাই সাইকিয়াট্রিস্টদের সংগঠন বাংলাদেশ এসোসিয়েশন অব সাইকিয়াট্রিস্টস (বিএপি) এর প্রধান লক্ষ্য বলে মন্তব্য করেছেন সংগঠনটির নব নির্বাচিত সভাপতি ও সম্পাদকবৃন্দ।

গতকাল বিএপি এর ২০১৯-২০২০ মেয়াদের কার্যনির্বাহী পরিষদের দায়িত্ব গ্রহণের পর মনের খবর প্রতিনিধির কাছে তাৎক্ষনিক প্রতিক্রিয়া হিসেবে তারা একথা বলেন।

সংগঠনটির নব-নির্বাচিত ও বিদায়ী কমিটিরও সভাপতি দেশের খ্যাতনামা মনোরোগ বিশেষজ্ঞ অধ্যাপক ডা. ওয়াজিউল আলম চৌধুরী বলেন, এই কমিটিতে আগের কমিটি থেকে অল্প কিছু পরিবর্তন এসছে। সাধারণ সম্পাদক হিসেবে নির্বাচিত হয়েছেন তরুণ চিকিৎসক ডা. মোহাম্মদ তারিকুল আলম। তার তারুণ্যের শক্তি এবং কমিটির প্রবীণদের অভিজ্ঞতার সমন্বয়ে সংগঠনের কার্যক্রমগুলো এগিয়ে নিয়ে যাওয়া হবে। এই কমিটিতে দেশের প্রায় সব ইনস্টিটিউট থেকে প্রতিনিধি রয়েছে। সবমিলে বেশ ভারসম্যপূর্ণ একটি কমিটি হয়েছে। আমরা সবসময় চেষ্টা করি মানুষের মধ্যে সচেতনতা বৃদ্ধি করা। আমরা নিয়মিত সেমিনার সিম্পোজিয়াম করে থাকি, আমাদের ইচ্ছা এটাকে আরো বর্ধিত কলেবরে করা। আমাদের কনফারেন্স, সেমিনার গুলোতে বেশি পরিমানে বিদেশি প্রতিষ্ঠানের সাইাকিয়াট্রিস্টদের অংশগ্রহণ নিশ্চিত করার চেষ্টা থাকবে। এসব বিষয়ে আমরা নতুন কমিটির প্রথম মিটিংয়ে পরিকল্পনা করবো।

এছাড়াও বিএপি এর প্রকাশানাকে আরো বেশি সমৃদ্ধ করার কথাও বলেন অধ্যাপক ডা. ওয়াজিউল আলম চৌধুরী। মানসিক স্বাস্থ্য আইন পাশে সংগঠনের সাফল্য উল্লেখ করে তিনি বলেন, এই ধারাবাহিকতাকে অব্যাহত রেখে আমরা বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানে সাইকিয়াট্রিস্টদের জন্য পদ বৃদ্ধির জন্য সরকারকে চাপ দিতে থাকবো। ইতিমধ্যেই ঢাকা এবং ঢাকার বাইরে বিভিন্ন ইনস্টিটিউটে সাইকিয়াট্রিস্টদের জন্য পদ সৃষ্টিতে বিএপি অবদান রেখেছেন বলেও জানান তিনি।

একই প্রত্যয় মিললো সংগঠনের নব-নির্বাচিত সাধারণ সম্পাদক ডা. মোহাম্মদ তারিকুল আলম এর কথাতেও। তিনি বলেন, সাইকিয়াট্রিস্টদের প্রতিনিধিত্ব করতে পারাটা গৌরবের, সেই সাথে এটা অনেক বড় দায়িত্বেরও। সকলের প্রত্যাশা অনেক বেশি আর বাংলাদেশের প্রেক্ষাপটে সাইকিয়াট্রিস্টদের সমস্যা অনেক। সকলের সহযোগিতায় সেগুলো সমাধানের চেষ্টা করবো। আমরা দীর্ঘদিন ধরে কাজ করছি, আমাদের দেশে আন্ডার গ্রাজুয়েশন পর্যায়ে সাইকিয়াট্রি সাবজেক্ট নিয়ে বৈষম্য রয়েছে, এ বিষয়টি নিয়ে আমরা কাজ করব। পাশাপাশি বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানে সাইকিয়াট্রিস্টদের জন্য পদ সৃষ্টি ও সাইকিয়াট্রি বিষয়ে সচেতনতা বৃদ্ধি করা আমাদের প্রধান এজেন্ডা থাকবে।

উল্লেখ্য, গত ১১ ডিসেম্বর  রাজধানীর শেরেবাংলা নগরে জাতীয় মানসিক স্বাস্থ্য ইনস্টিটিউটের কনফারেন্স হলে  সংগঠনের ২৬ তম বার্ষিক সাধারণ সভা এবং কার্যনির্বাহী কমিটির  নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়।

গতকাল (৮ ডিসেম্বর) একই স্থানে নতুন কমিটির কাছে দায়িত্ব হস্তান্তর করে বিদায়ী কমিটি।

 বিএপি কার্যনির্বাহী পরিষদ (২০১৯২০২০) পূর্ণাঙ্গ কমিটি:

সভাপতি: অধ্যাপক ডা. ওয়াজিউল আলম চৌধুরী
সহ-সভাপতি: অধ্যাপক ডা. মোহিত কামাল
সহ-সভাপতি: অধ্যাপক ডা. ঝুনু শামসুন্নাহার
সহ-সভাপতি: ব্রিগেডিয়ার জেনারেল অধ্যাপক ডা. আজিজুল ইসলাম
সাধারণ সম্পাদক: ডা. মোহাম্মদ তারিকুল আলম
সহ-সাধারণ সম্পাদক: ডা. রমেন্দ্র কুমার সিনহা
সহ-সাধারণ সম্পাদক: ডা. মো. জিল্লুর রহমান খান
সাংগঠনিক সম্পাদক: ডা. নিয়াজ মোহাম্মদ খান
কোষাধ্যক্ষ: ডা. অভ্র দাস ভৌমিক
সেক্রেটারি অফ সায়েন্টিফিক অ্যাফেয়ার্স: ডা. মেখলা সরকার
সেক্রেটারি অফ সায়েন্টিফিক অ্যাফেয়ার্স: ডা. সুষ্মিতা রায়
সেক্রেটারি অফ ইন্টারন্যাশনাল অ্যাফেয়ার্স: ডা. সিফাত- ই-সৈয়দ
অফিস সম্পাদক: ডা. এ কে এম খালেকুজ্জামান
সদস্য: অধ্যাপক ডা. মো. গোলাম রব্বানী
সদস্য: অধ্যাপক ডা. এম এস আই মল্লিক
সদস্য: অধ্যাপক ডা. গোপাল শংকর দাস
সদস্য: অধ্যাপক ডা. মো. ফারুক আলম
সদস্য: অধ্যাপক ডা. মো. খসরু পারভেজ চৌধুরী
সদস্য: অধ্যাপক ডা. আবদুল্লাহ্ আল মামুন হোসাইন
সদস্য: অধ্যাপক ডা. সালাহ্উদ্দিন কাউসার বিপ্লব
সদস্য: অধ্যাপক ডা. তন্ময় প্রকাশ বিশ্বাস
সদস্য: ডা. সুলতানা আলগিন
সদস্য: ডা. দিপেন্দ্র নারায়ণ দাস
সদস্য: ডা. হেলাল উদ্দিন আহমেদ
সদস্য: ডা. নুরুন্নাহার চৌধুরী