মূল পাতা / প্রশ্ন-উত্তর / বিশেষজ্ঞ পরামর্শ / আমার স্বামী আমার সাথে একদমই মিশতে পারে না

আমার স্বামী আমার সাথে একদমই মিশতে পারে না

সমস্যা :
আমার নাম সেতু, আমি ইন্ট্রোভার্ট, সম্প্রতি আমার বিয়ে হয়েছে। বিয়ের কিছুদিন পর বুঝলাম আমার স্বামীও ইন্ট্রোভার্ট, কিছুটা অস্বাবিক। সে আমার সাথে একদমই মিশতে পারে না, খুবই বেরসিক টাইপ কথাবার্তা ওনার। আর কথা বলেও খুব কম, ওর প্রতি আমার কোনও আকর্ষণ, টান কিছুই কাজ করে না। মাঝে মাঝে কোনো কথাবার্তা ছাড়াই হঠাৎ যৌন সম্পর্ক গড়ে তোলে, অনেকটা জোর করেই এ কাজটা করে, আমার খুব কষ্ট হয়, একদমই মেনে নিতে পারি না এ ব্যাপারটা। নিজেকে খুব একা লাগে, সব সময় বিষণ্নতায় ভুগি, কোনও কাজ করতে ইচ্ছা জাগে না, সব সময় বিছানায় পড়ে থাকি, নিজের মনের মাঝে কোনো প্রফুল্লতা অনুভব করি না। এখন খুব ইচ্ছে করে আত্মহত্যা করতে, স্বামীকে অনেক বুঝানোর চেষ্টা করেছি কিন্তু আমার মনে হয় ও এই ব্যাপারগুলো বুঝেই না, ওর কথা শুনলে মনে হয় বিয়ে মানে শুধু সেক্স আর বাচ্চা, ও আর পাল্টাবে না, তাই বহুবার চেষ্টা করেছি নিজে পাল্টে যেতে, কিছুদিন ওর আচরণ মেনে নিলেও এখন আর পারছি না। আমি সব সময় নিঃসঙ্গ অনুভব করি, সব সময় মনে হয় আমার এমন একজন যদি থাকত যার সাথে আমি মন খুলে কথা বলতে পারব, যে আমাকে বুঝবে, আমাকে খুব বেশি টাইম দিতে না পারলেও যেটুকু সময় দিবে সেটুকু কোয়ালিটি টাইম হবে। কিন্তু বাস্তবে আমার স্বামীতো একেবারেই আলাদা, আমি ওকে ডিভোর্স দিতে চেয়েছিলাম কিন্তু আমার মা বাবার সাপোর্ট পাইনি, তারা বলেছে মরে গেলেও এই লোকের সাথেই জীবন কাটিয়ে দিতে হবে, আমি প্রচন্ড রকমের অপূর্ণ আর অতৃপ্ত, স্বামীর সাথে সময় কাটাতে প্রচন্ড অস্বস্তি আর বিরক্তি লাগে, মাঝে মাঝে দম বন্ধ হয়ে আসে, এভাবে পুরটা জীবন কিভাবে পার করব??? কোনও সলুশন আছে?

 

পরামর্শ:
আমার কাছে আপনার সমস্যার সমাধানে করণীয় সম্পর্কে জানতে চাওয়ার জন্য ধন্যবাদ। সত্যিকার অর্থে আপনারা দুজনেই ব্যক্তিত্বের সমস্যায় ভূগছেন। যে কারণে আপনাদের মধ্যে মানিয়ে নেওয়ার মানসিকতার অভাবে দ্বন্দ্বের সৃষ্টি হচ্ছে। জীবন মানেই যন্ত্রনা, জীবন মানেই খাপ খাইয়ে চলা। ব্যক্তিত্বের সমস্যার কারণে যেটা আপনাদের পক্ষে সম্ভব হচ্ছে না। ঐ কাজটার আনন্দ নির্ভর করে সুষ্ঠ মানসিকতা ও সুসম্পর্কের উপর যার কোনোটাই আপনার নেই। তাই খারাপ বিষয় গুলোকে ভুলে গিয়ে ভালোগুলোকে সামনে এনে সুসম্পর্ক স্থাপনের চেষ্ট করুন। তাতে কষ্ট অনেকটাই কমে যাবে। আপনাকে অবশ্যই দোটানায় ভুগলে চলবে না। সম্পর্ক টিকিয়ে রাখা বা ভেঙ্গে ফেলার চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত নিতে হবে। যদিও সিদ্ধান্ত নেওয়ার এখতিয়ার পুরোপুরি আপনার তবুও আমার মনে হয় সম্পর্ক ভেঙ্গে খুব বেশি লাভবান হবেন না। যদিও ব্যক্তিত্বের সমস্যার খুব বেশি পরিবর্তন করা যায় না তথাপিও আধুনিক চিকিৎসায় থেরাপির মাধ্যমে যথেষ্ট উপকার পাওয়া যায়। তাই দু‘জনে মিলে অভিজ্ঞ সাইকোথেরাপিষ্ট বা সাইকিয়াট্রিষ্ট এর সাথে যোগাযোগ করতে পারেন।
– খোদা হাফেজ

পরামর্শ দিচ্ছেন,
ডা. মো. নিজাম উদ্দিন


দৃষ্টি আকর্ষণ- মনেরখবর.কম এর প্রশ্ন-উত্তর বিভাগে, মানসিক স্বাস্থ্য, যৌন স্বাস্থ্য, মাদকাসক্তি সহ মন সংক্রান্ত বিভিন্ন বিষয়ে আপনার কোনো জানার থাকলে বা প্রশ্ন থাকলে বা বিশেষজ্ঞ পরামর্শ দরকার হলে question@monerkhabor.com এই ইমেলের মাধ্যমে প্রশ্ন পাঠাতে পারেন।