আপনার মেয়ে উদ্বেগজনিত রোগে ভুগছে 1

আপনার মেয়ে উদ্বেগজনিত রোগে ভুগছে

সমস্যাঃ
আসসালামু
আলাইকুম। আমি পেশায় একজন ব্যবসায়ী, বয়স ৪১ বছর। আমার স্ত্রী শীক্ষিকা বয়স ৩৮ বছর আমাদের একটি মেয়ে বয়স ৯ বছর। মেয়েটি বয়সের তুলনায় বুদ্ধিমতিই বলা যায়। ছোটবেলা থেকেই একটু নার্ভাস প্রকৃতির। একটু সমস্যায় পড়লেই হাত পা ঘেমে যায়, দাঁতে নখ কাটে।  ইদানিং একটা ব্যাপার দেখছি বাইরে বেরোনোর আগে কোনো না কোনো একটা কারণে আপত্তি, মায়ের সাথে মতের অমিল, কান্নাকাটি করে অস্বস্তিকর একটি পরিবেশ তৈরি হয়। এই কারণ শুরু হয় পোশাক পছন্দ থেকে চুল বাধা জুতা পরা এসব নিয়ে। খুতখুতে ভাব থাকে হয়তো চুল বাধা হলো তো দুটো চুল বের হয়ে আছে কেন, আমাকে কেমন দেখাচ্ছে ইত্যাদি। আমি খেয়াল করেছি বাইরে বেরোলেই ভীত থাকে এবং যথারীতি হাত পা ঘামতে থাকে অথচ বাইরে বেরোতে খুব পছন্দও করে। বেরোনোর কোনো কারণ না থাকলে মাঝে মাঝে বলে, “বাবা চলো একটু রিকশায় ঘুরে আসি” এটা কি কোনো সমস্যা?

উল্লেখ্য আমার মেয়েটি কালো এবং এই বয়সেই নিয়ে বিভিন্ন মন্তব্য তাকে শুনতে হয়েছেহচ্ছে। এবং পেশাগত কারণে আমাকে ওদের থেকে দূরে থাকতে হয় যদিও যখনই সুযোগ হয় আমি যাই এবং সময় দেয়ার চেষ্টা করি। অনুগ্রহ করে পরামর্শ দিয়ে সঠিক পথ দেখাবেন

ধন্যবাদ

(সমস্যাটি কোথাও প্রকাশ করলে নাম প্রকাশ না করার জন্য অনুরোধ করছি)

 

পরামর্শঃ 
সমস্যা সম্পর্কে জানতে চাওয়ার জন্য আপনাকে ধন্যবাদ  প্রশ্নের জবাবে সহজ ভাষায় বলা যায় যে, এটা অবশ্যই একটা মানসিক সমস্যা  আপনার মেয়ের ইতিহাস থেকে এটা স্পষ্ট যে,  বর্তমানে সে উদ্বেগজনিত রোগ  (Anxiety disorder) এ ভুগছে তবে আরও কিছু তথ্য জানার প্রয়োজন আছে যেমন  সে স্কুলে নিয়মিত নিজের ইচ্ছায় যায় কিনা কিংবা স্কুল সম্পর্কেও তার কোনোরকম ভীতি আছে কিনা

মূলতঃ উদ্বেগজনিত রোগেরই একটা ধরণ হচ্ছে ভীতিজনিত রোগ যার আধিক্য সাধারণত শৈশব কিংবা কৈশোর বয়সেই বেশি পরিলক্ষিত হয় যেহেতু আপনার মেয়েটি কালো এবং এই বয়সেই নিয়ে বিভিন্ন মন্তব্য তাকে শুনতে হয়েছেহচ্ছে কাজেই তার বর্তমান অবস্থার জন্যে এটাও একটা কারণ এর চিকিৎসায় মেডিকেশন এবং বিহেভিয়ার থেরাপি দুটোরই প্রয়োজন হতে পারে। অবস্থায় আপনি আপনার মেয়ের জন্যে  একজন  মনোরোগ বিশেষজ্ঞের পরামর্শ নিতে পারেন। উনি আপনার মেয়ের মানসিক অবস্থা পরীক্ষার মাধ্যমে চিকিৎসার ধরণ ঠিক করবেন।

আর আপনার প্রতি পরামর্শ যে, আপনার মেয়েকে সব সময় উৎসাহ দিন, তার কাজের প্রশংসা করুন এবং অন্য কারো সাথে তাকে কখনো তুলনা করবেন না। আশা করি শীঘ্রতম সময়ে আমার মেয়ে তার সমস্যা কাটিয়ে উঠতে পারবে।

পরামর্শ দিচ্ছেন,
ডাঃ
সুস্মিতা রায়


দৃষ্টি আকর্ষণ- মনেরখবর.কম এর প্রশ্ন-উত্তর বিভাগে, মানসিক স্বাস্থ্য, যৌন স্বাস্থ্য, মাদকাসক্তি সহ মন সংক্রান্ত বিভিন্ন বিষয়ে আপনার কোনো জানার থাকলে বা প্রশ্ন থাকলে বা বিশেষজ্ঞ পরামর্শ দরকার হলে question@monerkhabor.com এই ইমেলের মাধ্যমে প্রশ্ন পাঠাতে পারেন।