মূল পাতা / প্রশ্ন-উত্তর / সবাই দুর্বল বলায় সেও নিজেকে দুর্বল ভাবে

সবাই দুর্বল বলায় সেও নিজেকে দুর্বল ভাবে

প্রশ্ন: আমার ছেলে সাইফ। বয়স দশ বছর। ৩য় শ্রেণিতে পড়ে। পরীক্ষায় লিখতে না পারার কারণে তাকে দ্বিতীয় বার ৩য় শ্রেণিতে রাখা হয়েছে। ছোটবেলা থেকেই তার চোখের সমস্যা তাই তাকে চশমা ব্যবহার করতে হয়। দেখতে সমস্যা থাকার কারণে সে ঠিকমতো রিডিং পড়তে পারে না। কারণে সে পড়াও তুলে আনে না। তাকে সবাই দুবর্ল বলায় সে নিজেও নিজেকে দুবর্ল ভাবে। যা সে পারে তাও খাতায় লেখে না। পরীক্ষার সময় বসে থাকে। কয়েকবার প্রয়াস-এ কাউন্সিলিং করেও কোনো ফল পাইনি। এ অবস্থায় আমার করণীয় কী জানালে উপকৃত হব।-নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক।

উত্তর: আপনার ছেলের সমস্যা শুনে মনে হচ্ছে শুধমুাত্র চোখের সমস্যাই লেখাপড়ায় পিছিয়ে থাকার কারণ নয়; তার মস্তিষ্কের বিকাশজনিত সমস্যা রয়েছে বলে মনে হয়। এ ধরনের সমস্যায় অনেক শিশু রিডিং পড়তে পারে না এবং লেখার সময় প্রচুর বানান ভুল করে। কারো কারো মনোযোগের সমস্যাও থাকে। আবার যথেষ্ট বুদ্ধিমত্তা না থাকায়ও এরকম হতে পারে। পড়াশুনায় পিছিয়ে থাকা ও সহপাঠীদের সমালোচনার কারণে সম্ভবত আপনার শিশুর মনোবল কমে গেছে। এজন্য তার সাবির্ক অবস্থা পরীক্ষা-নীরিক্ষা করার জন্য কোনো মানসিক বিশেষজ্ঞ অথবা মানসিক রোগ বহিবির্ভাগে নিয়ে যাওয়া দরকার। হাসপাতালের কোনো শিশু বিকাশ ক্লিনিকেও নিয়ে যেতে  পারেন। শিশু হাসপাতাল ও জাতীয় মানসিক স্বাস্থ্য ইনস্টিটিউটে এ ধরনের ক্লিনিক রয়েছে। সংশিষ্ট পেশাজীবীদের সমন্বিত চিকিৎসায় আপনার শিশুর উন্নতি সম্ভব হবে বলে মনে হয়।

অধ্যাপক ও শিশু মনোরোগ বিশেষজ্ঞ, সাবেক চেয়ারম্যন মনোরোগবিদ্যা বিভাগ, বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়